বলিউডের জনপ্রিয় কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব তার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন!

রাজু শ্রীবাস্তব, বলিউডের একজন জনপ্রিয় অভিনেতা ও কমেডিয়ান হিসেবে আমরা সবাই তাকে চিনি। একুশে সেপ্টেম্বর 2022 অর্থাৎ আগামী কাল এই মহান বলিউড সুপারস্টার কমেডিয়ান তার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন দিল্লির এইমস হাসপাতালে।

Popular Bollywood comedian Raju Srivastava breathed his last

৫৮ বছর বয়সে তার এই দেহত্যাগ। তিনি অনেকদিন ধরে দিল্লির এইমস হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন আর কেউ এটা আশা করেনি যে হঠাৎ করে এরকম একটা ঘটনা ঘটে যাবে। সবাই এটা ভেবেছিল যে তিনি সুস্থ হয়ে যাবে। জানা গেছে যে এর আগের সপ্তাহে তার শরীর অসুস্থতার কারণে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়।

তথ্য অনুযায়ী তিনি তার নিজের হোটেলেই জিম ঘরে প্রতিদিনের মতন জিম করছিলেন। ট্রেডমিলের ওপরে বসে চিনি করার সময় তার বুকে ব্যথা শুরু হয় এবং তিনি নিচে পড়ে যায় ঠিক ততক্ষণই সেই জিমের যে ট্রেনার ছিল সে তৎক্ষণা তাকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। জানা যায় যে সেই ট্রেডমিলে জিম করার সময় তার বুকে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট নামক একটি রোগের কারণে ব্যথা শুরু হয়। কেউ ভাবতেও পারেনি যে হঠাৎ করে তার এরকম একটি রোগ দেখা দেবে। আসলে কার্ডিয়াক এরেস্ট এমন একটি রোগ যেটি হার্ট অ্যাটাক নামেও প্রচলিত। এই জিনিসটা যখন যে কারোর সাথেই হতে পারে।

আরো জানুন → জানেন কি Thank God মুভিটি কারা কারা রিজেক্ট করেছেন আস

→ আপনি কি জানেন গাদ্দার মুভির চরিত্রদের রিয়াল লাইফ পার্টনারের নাম

কয়েকদিন আগেও জনপ্রিয় গায়ক কেকে (KK) তার সাথেও ঠিক এরকমটাই ঘটেছিল তার মৃত্যুর পেছনেও ছিল এই কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট নামক ব্যাধি। রাজু শ্রীবাস্তব যিনি বলিউড কে ও দর্শকদেরকে বিভিন্ন রকম কমেডি চরিত্রে অভিনয় করে মনোরঞ্জন করেছে। আর দর্শকরা আজ এটা মেনে নিতে পারছি না যে তিনি আর আমাদের মধ্যে নেই।

আসলে প্রথমবারের কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট আসার পর উনি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে যান এবং তখন থেকে পরবর্তী 40 দিন ধরে তিনি মৃত্যুর সঙ্গে অনবরত লড়াই করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু বুধবার যখন দ্বিতীয়বার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট অ্যাটাক আসে তখন তাকে আর বাঁচানো সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তিনি মৃত্যুর সঙ্গে অনেক কঠিন লড়াই লড়েছিলেন কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেখানে আর জিতে উঠতে পারে না।

আসলে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট অ্যাটাক অনেক ভয়ংকর একটি রোগ। এই কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট অ্যাটাক কম বয়স থেকে বৃদ্ধ বয়স সবার ক্ষেত্রেই হতে পারে। তাই অবশ্যই এই রোগটির লক্ষণ গুলিকে এড়িয়ে যাওয়া ভয়ংকর হতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button